default-image

মৌলভীবাজারের জুড়ীতে পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করে ব্যক্তিমালিকানাধীন একটি টিলা কেটে বসতঘর নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের লোকজন রোববার বিকেলে উপজেলার গোপালবাড়ি ইউনিয়নের দ্বহপাড়া গ্রামে অভিযান চালান। তবে এ ঘটনায় জড়িত কাউকে সেখানে না পাওয়ায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রশাসন।

উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দ্বহপাড়া গ্রামের বাসিন্দা আতিকুল ইসলাম ১৫-২০ দিন ধরে নিজের মালিকানাধীন প্রায় ৪০ ফুট উচ্চতার একটি টিলা কাটাচ্ছেন। তবে বৃষ্টির কারণে দুই-তিন ধরে এ কাজ বন্ধ রয়েছে। এরই মধ্যে টিলার প্রায় আট শতক জায়গা কেটে নিচে একটি পাকার বসতঘর নির্মাণ করা হয়ে গেছে। এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। দলে অন্যান্যের মধ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের মৌলভীবাজার কার্যালয়ের পরিদর্শক ফখর উদ্দিন চৌধুরী, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ভূমি কর্মকর্তাসহ আনসারের একটি দল ছিল।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোস্তাফিজুর রহমান মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, টিলাটি কাটায় ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বৃষ্টিতে যেকোনো সময় ধসে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। টিলার মালিককে বাড়িতে পাওয়া যায়নি। পরিবেশ অধিদপ্তর তাঁর বিরুদ্ধে ১৯৯৫ সালের পরিবেশ সংরক্ষণ আইনে মামলা করবে।

অভিযোগ সম্পর্কে জানতে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে আতিকুল ইসলামের ব্যবহৃত মুঠোফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0