বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওহাব মিয়ার সঙ্গে তাঁর সৎভাই আবদুল করিমের জমি-জমার বণ্টন নিয়ে বিরোধ ছিল। এ নিয়ে গতকাল বুধবার রাতে তাঁদের ঝগড়া হয়। এদিকে আজ সকালে ওহাবের স্ত্রী সোনারা বেগমের সঙ্গে আবদুল করিম ও তাঁর স্ত্রীর তর্কাতর্কি হয়। একপর্যায়ে আবদুল করিম ও তাঁর স্ত্রী সোনারা বেগমকে এলোপাতাড়িভাবে কোপ দেন। এতে ঘটনাস্থলেই সোনারা বেগম মারা যান।

পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। নিহত ব্যক্তির মাথা, ঘাড়, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় দা দিয়ে কোপানোর ক্ষত রয়েছে বলে পুলিশের সুরতহাল প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে।

জৈন্তাপুর থানার ওসি গোলাম দস্তগির বলেন, জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় শিরিনা ও আবদুল করিমকে আটক করা হয়েছে। যে দা দিয়ে সোনারাকে কোপানো হয়েছে, সেটি শিরিনা বেগমের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এদিকে নিহত সোনারার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন