default-image

জয়পুরহাটে বিদেশে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জয়পুরহাট সদর উপজেলার দোগাছি ইউনিয়ন পরিষদের আট নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবদুল কুদ্দুসকে (৫০) গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জয়পুরহাট র‍্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেপ্তার করেন।

আবদুল কুদ্দুস জয়পুরহাট সদর উপজেলার চকশ্যাম গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে। এ ঘটনায় জয়পুরহাট সদর থানায় বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা করেছেন তরুণীর মা।
জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ ক্যাম্পের কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম মোহাইমেনুর রশিদ জানান, এক মাস আগে ওই তরুণীকে ভালো বেতনে সৌদি আরবে পাঠানোর প্রলোভন দেখান ইউপি সদস্য কুদ্দুস। তাঁর প্রস্তাবে প্রলুব্ধ হয়ে ওই তরুণী পাসপোর্ট করতে বুধবার বিকেলে খঞ্জনপুরে কুদ্দুসের সঙ্গে দেখা করেন। এ সময় কুদ্দুস তাঁর এক স্বজনের বাড়িতে নিয়ে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন। পরে স্থানীয় লোকজন তরুণীকে উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর জাহান বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টায় প্রথম আলোকে বলেন, বুধবার রাতে ওই তরুণীর মা বাদী হয়ে ইউপি সদস্য আবদুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন। আবদুল কুদ্দুসকে থানায় হস্তান্তর করেছে র‍্যাব।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0