বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের হাতে এখন অনেক টিকা। দেশে প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে প্রায় ২৫ ভাগকে দুই ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় পাঁচ কোটি ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। ৭০ থেকে ৮০ ভাগ মানুষকে টিকা দেওয়া গেলে পুরো দেশেই সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে এসে যাবে। যে পরিমাণ ডোজ অর্ডার দেওয়া হয়েছে, তাতে ৭০ থেকে ৮০ ভাগ মানুষকে দেওয়া যাবে।’

সম্প্রতি সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় অবস্থিত বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় গিয়েছিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশের ভূয়সী প্রশংসা করেছে। জনসংখ্যার অনুপাতে বাংলাদেশকে ২০ ভাগ টিকা দেওয়া হচ্ছে। তারা আমাকে আশ্বস্ত করেছে যে আমাদের বিনা মূল্যে ৪০ ভাগ টিকা দেবে।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে ৮০ লাখ ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। এক দিনে একসঙ্গে কোনো দেশ এত পরিমাণ টিকা দিয়েছে বলে আমার জানা নেই।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত হিন্দুধর্মাবলম্বী নেতাদের উদ্দেশে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি ধর্মই শান্তি ও মানবসেবার কথা বলে। করোনার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুর্গাপূজা উদ্‌যাপন করতে হবে। প্রতিটি পূজামণ্ডপের আয়োজকদের স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের ব্যবস্থা করতে হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ। অনুষ্ঠান শেষে সদর ও সাটুরিয়া উপজেলার ১৭৬টি পূজামণ্ডপের প্রতিটিতে সরকারি অনুদান হিসেবে ৫০০ কেজি চাল দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন