default-image

কুমিল্লা টাউন হলের সামনের সড়কের ফুটপাত দখল করে ব্যবসা করতেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও হকাররা। বিভিন্ন সময়ে সেখানে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হলেও রাজনৈতিক নেতাদের মদদে আবারও দখল হতো ফুটপাতে। এতে করে পথচারীদের পথ চলতে বেগ পেতে হয়।

এ অবস্থায় কুমিল্লা জেলা প্রশাসন সম্প্রতি ওই জায়গা থেকে হকারদের উচ্ছেদ করে। আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় ওই স্থানে থাকা লোহার গ্রিলে প্লাস্টিকের টবে ৫০০ ফুলের গাছ স্থাপন করা হয়। এতে পুরো এলাকা দৃষ্টিনন্দন ফুলের বাগানে পরিণত হয়েছে।
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন, ভলান্টিয়ার্স ফর বাংলাদেশ (ভিবিডি) ও গার্ডেন লাভার্স বাংলাদেশের কর্মীদের সহযোগিতায় ওই ফুলের বাগান করা হয়।

default-image

কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু সাঈদ বলেন, জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নগরের বিভিন্ন স্থানে ফুটপাত দখলমুক্ত করার নির্দেশনা দেন জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত সপ্তাহে কুমিল্লা টাউন হল মাঠের দক্ষিণ পাশে লোহার গ্রিলসংলগ্ন চায়ের দোকান, ফুচকার দোকান উচ্ছেদ করা হয়। একই সঙ্গে ফুটপাত থেকে খুদে কাপড়ের ব্যবসায়ীদের সরানো হয়।

বিজ্ঞাপন

আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় টাউন হল মাঠের পূর্ব-পশ্চিমের লোহার গ্রিলের মধ্যে প্লাস্টিক বোতলকে পুনর্ব্যবহার করে ৫০০টি ফুল ও পাতাবাহারগাছ লাগিয়ে দেওয়া হয়। প্রতিটি বোতলে রং করা হয়। এগুলো লাগানোর পর টাউন হল এলাকার পরিবেশ অত্যন্ত সুন্দর হয়েছে। এতে অন্তত ৫০ জন কর্মী কাজ করেন।

default-image

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, কুমিল্লা নগরীকে দখল ও দূষণমুক্ত রাখতে এবং ফুটপাত উচ্ছেদ করতে মেয়রকে বেশ কয়েকবার অনুরোধ করা হয়েছিল। অবশেষে সেই প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। টাউন হল এলাকায় ফুলের গাছ স্থাপন করায় দৃষ্টিনন্দন হয়েছে।

মেয়র মো. মনিরুল হক বলেন, ‘জেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। গত কয়েক দিনে প্রশাসন ফুটপাত থেকে হকারদের তুলতে পারছে। এটা নগরের সৌন্দর্য বাড়াবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন