বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বক্তারা উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, প্রায় ৬০০ মানুষ তথা প্রায় ১৫০ পরিবারের বসতভিটা সম্পূর্ণ প্রকল্পের মধ্যেই অবস্থিত। দীর্ঘকাল থেকে এই পরিবারগুলো এখানে বসবাস করছে। প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে পরিবারগুলো বসতভিটা হারাবে এবং উদ্বাস্তু হয়ে পড়বে।

এলাকায় তরমুজসহ কৃষিব্যবস্থা রক্ষা, দীর্ঘদিনের মানববসতি ও গোচারণ ভূমি রক্ষায় জরুরিভাবে বানীশান্তা এলাকায় পশুর নদ খননের বালু ফেলা বন্ধের দাবি জানান বক্তারা। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এলাকার কৃষি ও প্রতিবেশব্যবস্থা রক্ষায় বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তাঁরা।

বানীশান্তা ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত নারী সদস্য পাপিয়া মিস্ত্রীর সভাপতিত্বে এবং কৃষক ও কৃষিজমি রক্ষা আন্দোলনের সংগঠক কৃষ্ণপদ মণ্ডলের সঞ্চালনায় সভায় বক্তৃতা করেন বানীশান্তা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জয়কুমার মানিক, লবণ জল প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায়, কৃষিজমি রক্ষা আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ও সাবেক ইউপি সদস্য হিরণ্ময় মণ্ডল, বাপার দাকোপ প্রতিনিধি ইসরাফিল বয়াতি, বেলার বিভাগীয় সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান, শিক্ষক মৌসুমী হালদার, সুমতি মণ্ডল পরিমল হালদার, মাখন রায়, ঋষিকান্ত মণ্ডল প্রমুখ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন