পুলিশ জানায়, শিশু ইয়াসিন বুধবার দুপুরে দাদা আবদুল জলিলের সঙ্গে বাড়ির পাশের বারনই নদীতে গোসল করতে যায়। গোসলের একপর্যায়ে সে দাদার হাত ফসকে পানিতে তলিয়ে যায়। দাদাসহ আশপাশের লোকজন তাৎক্ষণিক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান পায়নি। শিশুটিকে উদ্ধারের জন্য রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দল এসে বারনই নদীতে অভিযান শুরু করে। সন্ধ্যা পর্যন্ত শিশুটির সন্ধান না পাওয়ায় তারা অভিযান স্থগিত করে।

রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সাব অফিসার নুরুন্নবী বলেন, এখন নদীতে পানির গভীরতা অনেক। স্রোত থাকায় শিশুটির অবস্থান শনাক্ত করতে পারেননি তাঁরা। অন্ধকার হয়ে যাওয়ায় অভিযান স্থগিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে আবার উদ্ধার অভিযান শুরু হবে।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, দাদার হাত ফসকে শিশুটি পানিতে তলিয়ে যায়। তাকে জীবন্ত উদ্ধারের আশা শেষ। তবে মৃতদেহ উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন