বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফরিদ হোসেন এটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আবদুল মান্নান মোটরসাইকেলে রাজশাহী থেকে নওগাঁর দিকে যাচ্ছিল। আক্তার হোসেন এক মোটরসাইকেলে তাঁর স্ত্রী বিথি খাতুন ও শিশুসন্তান মরিয়ম জান্নাতকে নিয়ে নওগাঁ থেকে রাজশাহীর দিকে যাচ্ছিলেন। নওহাটায় দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। তাঁরা মোটরসাইকেল থেকে পড়ে গেলে একটি ট্রাক্টর তাঁদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশু মরিয়ম ও মান্নান মারা যান। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর বিথি মারা যান। অন্য দুটি লাশ এখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে আছে। আক্তার হোসেন বেঁচে আছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন