স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে করোনা টিকা ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি একটি রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেছে। চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীসহ জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের আন্তরিকভাবে দায়িত্ব পালনের কারণে সুষ্ঠুভাবে টিকাদান সম্পন্ন হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্থানীয় মানিকগঞ্জ-৩ আসনের (সদর ও সাটুরিয়া) নির্বাচিত সাংসদ। তিনি জেলা সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাপনা উন্নয়ন কমিটির সভাপতিও। ২০১৭ সালের পর আজ এ কমিটির মাসিক সভা হয়।

সভাপতির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, শিগগিরই এই হাসপাতালে এমআরআই যন্ত্র ও নবজাতক শিশুদের বিশেষ পরিচর্যা ইউনিটের উদ্বোধন করা হবে। হাসপাতালে শূন্য পদে দ্রুত পদায়ন এবং কর্তব্যরত ২২৮ নার্সের জন্য আবাসন ব্যবস্থার আশ্বাস দেন তিনি। হাসপাতালের ১০ শয্যার ডায়রিয়া ইউনিটকে ৫০ শয্যায় উন্নীত করার বিষয়েও আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

সভায় জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহীউদ্দীন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালাম, মানিকগঞ্জ পৌর মেয়র মো. রমজান আলী, সিভিল সার্জন মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী, কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ জাকির হোসেন, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক আরশ্বাদ উল্লাহ্, জেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা গোলাম নবী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন