default-image

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে গতকাল শুক্রবার মধ্যরাতে সন্ত্রাসীর ছুরিকাঘাতে ইসরাফিল হোসেন (৩৮) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি পৌর এলাকার আড়পাড়া গ্রামের ওসমান আলীর ছেলে। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পার্শ্ববর্তী শিবনগর গ্রামের শরিফুল ইসলামের ছেলে রানাকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় ব্যক্তিরা বলেন, গতকাল রাত সাড়ে ১২টার দিকে রানার সঙ্গে অপর এক ব্যক্তির ধাক্কাধাক্কি হচ্ছিল। এ সময় ইসরাফিল হোসেন তাঁদের ঠেকাতে যান। এ সময় তাঁকে ছুরিকাঘাত করা হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁকে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয় ব্যক্তিরা আরও বলেন, আটক রানা নেশাগ্রস্ত। প্রায়ই নেশা করে এলোমেলো চলাফেরা করতেন। এমনকি ঘটনার সময়ও তিনি নেশাগ্রস্ত ছিলেন।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মো. ইমতিয়াজ আলম গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, ইসরাফিল হোসেন হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই মারা গেছেন। তাঁর পেটে ছুরিকাঘাত করার কারণে নাড়িভুঁড়ি বের হয়ে গিয়েছিল।  

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহা. মাহফুজুর রহমান মিয়া বলেন, তুচ্ছ ঘটনায় ছুরিকাঘাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে রানাকে আটক করে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন