বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩১৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। তাঁদের মধ্যে আরটি–পিসিআর ল্যাবে ২৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬৮ জন ও র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন পরীক্ষায় ৬২ জনের নমুনার মধ্যে ২২ জনের করোনা শনাক্ত হয়। আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৪৩ জন, রায়পুরায় ৬ জন, বেলাবতে ৪ জন, মনোহরদীতে ৩ জন, শিবপুরে ১৩ জন ও পলাশ উপজেলায় ২১ জন। নমুনা সংখ্যা বিবেচনায় করোনা শনাক্তের হার ২৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

সিভিল সার্জন কার্যালয়ের হিসাব অনুযায়ী, গতকাল পর্যন্ত এ জেলার ৬টি উপজেলা থেকে ৩১ হাজার ৫৮৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা হয়। তাঁদের মধ্যে মোট ৫ হাজার ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। করোনা শনাক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে সদরে ৩ হাজার ২৫ জন, শিবপুরে ৪৩৬ জন, পলাশে ৭৯১ জন, রায়পুরায় ২৬৮ জন, বেলাবতে ২৩১ জন ও মনোহরদীতে ২৬৪ জন। বর্তমানে  ৪৩ জন কোভিড ডেডিকেটেড ১০০ শয্যাবিশিষ্ট নরসিংদী জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। অন্যদিকে নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন ৪৫২ জন।

জেলায় এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন মোট ৬৫ জন। তাঁদের মধ্যে নরসিংদী সদরে ৩৩ জন, পলাশের ৬ জন, বেলাব ৭ জন, রায়পুরা ৮ জন, মনোহরদী ৪ জন ও শিবপুরে ৭ জন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিভিল সার্জন মো. নুরুল ইসলাম জানান, নরসিংদীতে করোনা রোগীর সংখ্যা পাঁচ হাজার ছাড়িয়েছে। করোনার সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে হলে অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের বিষয়ে বিশেষ নজর দিতে হবে। এ ছাড়া পরিবারের কারও শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দিলে তাঁকে নিকটস্থ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে নমুনা দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন