বিজ্ঞাপন

পরিবার ও স্থানীয় লোকজন জানান, বেলা সোয়া একটার দিকে তানহা ও শিউলি একসঙ্গে মেঘনার শাখানদীর ঘাটে গোসল করতে যায়। এ সময় স্থানীয় আরও কিছু লোকজন ওই ঘাটে গোসল করছিলেন। ওই দুই শিশুকে বেশ কিছুক্ষণ ধরে একসঙ্গে গোসল করতে দেখেন ঘাটের লোকজন। কিছুক্ষণ পর জামাকাপড়, স্যান্ডেল ও সাবান ঘাটে পড়ে থাকতে দেখলেও তাদের দুজনকে আর দেখা যাচ্ছিল না। এতে সন্দেহ হলে ঘাটে গোসল করতে আসা কয়েকজন লোক শিশু দুটির বাড়িতে খোঁজ নেন।

বাড়িতে না পেয়ে বেলা দুইটার দিকে তানহা ও শিউলির পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে পানিতে নামেন স্থানীয় লোকজন। এরপর ঘাটের নিচের দিকের একটি সিঁড়ির নিচে আটকে থাকা অবস্থায় ওই দুই শিশুকে উদ্ধার করা হয়। দ্রুত ওই দুই শিশুকে নরসিংদী সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দুজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

নরসিংদী সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) সৈয়দ আমীরুল হক জানান, ‘বেলা সাড়ে তিনটার দিকে শিশু দুটিকে মৃত অবস্থায় আমাদের হাসপাতালে আনা হয়েছিল। মৃত ঘোষণা করার পর স্বজনেরা লাশ নিয়ে বাসায় ফিরে গেছেন।’

আলোকবালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বর্ষাকাল চলায় গ্রামের সব দিকেই পানি। বাচ্চা দুটি নদীর পানিতে গোসল করতে গিয়েছিল। ওই পানিতে ডুবেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন