সিরাজগঞ্জ ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) খোকন চন্দ্র সরকার প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নাশকতার উদ্দেশ্যে জামায়াত-শিবিরের নেতা-কর্মীরা গোপনে সভা করছেন—এমন সংবাদের ভিত্তিতে রোববার রাতে জামায়াত-শিবির নিয়ন্ত্রিত ওই মেসে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ১০টি ককটেল, পাঁচটি মোটরসাইকেল ও ১০টি মোবাইল জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন জামায়াতে ইসলামের জেলা আমির শাহিনুর আলম, ছাত্র শিবিরের জেলা সভাপতি তরিকুল ইসলাম, ছাত্র শিবিরের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ উদ্দিন, সাবেক সভাপতি বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র শিবির সিরাজগঞ্জ জেলা শাখা ইমরান হোসেন, জেলা শাখার অফিস সম্পাদক আজিজুর হক, ছাত্র শিবিরের রেজুয়ানুল্লাহ সোয়াইব, মনিরুল ইসলাম, আলামিন হোসেন, শরিফুল ইসলাম, আইয়ুব আলী, আবু বক্কর খান, মনিরুল ইসলাম, জাকারিয়া ও রবিউল ইসলাম।

ডিবির ওই কর্মকর্তা খোকন চন্দ্র আরও বলেন, আটক ব্যক্তিদের ডিবি কার্যালয়ে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সোমবার সকালে আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে সদর থানায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে মামলা হয়েছে। এ মামলায় তাঁদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন