default-image

জামালপুর পৌর শহরে একটি ড্রেন নির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। নিম্নমানের কাজ হওয়ায় গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে প্রায় ১৫০ মিটার ড্রেন বুলড্রোজার দিয়ে ভেঙে ফেলা হয়।

পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, জামালপুরের আটটি পৌরসভার ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প নেওয়া হয়েছিল। এর আওতায় জামালপুর পৌর শহরের বেলটিয়া বাজার থেকে পুলিশ লাইনস সেতু পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে ৯২০ মিটার করে পাকা ড্রেন নির্মাণে ১ কোটি ৬৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা বরাদ্দ হয়। মাম কনস্ট্রাকশন-সাম ইঞ্জিনিয়ারিং (জেবি) নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজটি পায়। তবে স্থানীয়ভাবে কাজটির তদারক করছেন এস এম মোয়াজ্জেম হোসেন নামের এক ব্যক্তি।

বিজ্ঞাপন

জামালপুর পৌরসভার উপসহকারী প্রকৌশলী মোস্তফা কামাল প্রথম আলোকে বলেন, কাজের শুরু থেকেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দরপত্রের শর্ত ভেঙে অনিয়ম করে আসছিল। বারবার সতর্ক করা হয়েছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে। প্রথমে মৌখিক এবং পরে লিখিতভাবে তাদের বলা হয়েছিল। কিন্তু তারা কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে নিম্নমানের কাজ করে আসছিল। এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার ওই ড্রেন নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেয় পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। যে অংশে নিম্নমানের কাজ হয়েছে, সেটুকু ভেঙে দরপত্রের শর্ত অনুযায়ী করার জন্য সময়ও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারা শোনেনি। ফলে পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেনের নির্দেশে গতকাল বুলড্রোজার দিয়ে প্রায় ১৫০ মিটার ড্রেন ভেঙে ফেলা হয়েছে।

অভিযোগের ব্যাপারে বক্তব্য জানতে স্থানীয়ভাবে কাজের তদারক করা এস এম মোয়াজ্জেম হোসেনের মুঠোফোন নম্বরে ফোন দিলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

পৌর মেয়র ছানোয়ার হোসেন বলেন, পৌরসভার কোথাও উন্নয়নকাজে কোনো ধরনের অনিয়ম মেনে নেওয়া হবে না। যেখানেই অনিয়ম হবে, সেখানেই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন