বিজ্ঞাপন
default-image

এদিকে নির্যাতনের ফলে গৃহকর্মী সাদিয়ার মৃত্যুর ঘটনায় বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের শেরপুর জেলা শাখার সভাপতি রাজিয়া সামাদ, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি জয়শ্রী দাস লক্ষ্মী, নাগরিক সংগঠন জনউদ্যোগ শেরপুর কমিটির আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ, মানবাধিকার সংগঠন আমাদের আইনের সভাপতি নুর ই আলম পৃথক বিবৃতি পাঠিয়েছেন।

বিবৃতিতে তাঁরা বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা আহসান হাবিব নিজ বাসায় শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের ঘটনার দায় এড়াতে পারেন না। তাঁর অজান্তে দিনের পর দিন এমন ঘটনা ঘটেছে, তা বিশ্বাসযোগ্য নয়। তাই তাঁকেও (আহসান হাবিব) আইনের আওতায় এনে ওই দম্পতির ফাঁসির দাবি করেন নেতৃবৃন্দ।

এসআই সাইফুল ইসলাম বলেন, নির্যাতনের ফলে শিশু সাদিয়ার মৃত্যুর মামলাটি বর্তমানে তদন্তাধীন। মামলার একমাত্র আসামি রুমানা জামানকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। তদন্তে এ ঘটনায় রুমানার স্বামী আহসান হাবিবের সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে তাঁকেও আইনের আওতায় আনা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন