default-image

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি মাইক্রোবাস দোকানে ঢুকে পড়ায় এক তরুণ নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত আটজন। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় মিরসরাই উপজেলার ওসমানপুর ইউনিয়নের মুহুরি প্রকল্প বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নিহত তরুণের নাম ফখরুল ইসলাম শাওন (১৯)। তিনি ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের সোনাপুর এলাকার আহসান উল্যাহর ছেলে। তাঁর মৃত্যুর খবরে আত্মীয়স্বজন ও সহপাঠীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন জোরারগঞ্জ থানার কাটাছড়া ইউনিয়নের তেমুহনী এলাকার সিদ্দিক আহমেদের ছেলে কামাল উদ্দিন (৬৫), ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় চরদরবেশ ইউনিয়নের নুরুন নবীর ছেলে নুর করীম হৃদয় (২২), মিরসরাই উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের মাওলানা শহীদুল ইসলাম (৪০) ও বাঁশখালী গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক ইলিয়াস হোসাইন (৩৫)। এ ছাড়া নিহত ফখরুলের বন্ধু সোনাপুরের মো. রুবেল, মো. নাবেদ, সাহাপুর এলাকার সাহাব উদ্দিন সামান্য আহত হয়েছেন। আরেকজনের নাম জানা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

মুহুরি প্রকল্প বাজারের রাজু কুলিং কর্নারের মালিক সাইফুল ইসলাম বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় ফখরুল তাঁর দোকানে বসে দই–চিড়া খাচ্ছিলেন। এমন সময় হঠাৎ দ্রুতগতির একটি মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাঁর দোকানে ঢুকে পড়ে। এতে ফখরুলসহ সাত থেকে আটজন ক্রেতা গুরুতর আহত হন।

মিরসরাই ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা ইমাম হোসেন পাটোয়ারী জানান, সন্ধ্যা পৌনে সাতটার দিকে জোরারগঞ্জগামী নোহা মাইক্রোবাস মুহুরি প্রকল্প এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সাইফুল ইসলামের কুলিং কর্নারে ঢুকে পড়ে। এতে মাইক্রোবাসের কয়েকজন যাত্রী আহত হন। স্থানীয় লোকজন আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফখরুলের মৃত্যু হয়। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চারজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন