বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মো. মারুফের বাবা মো. হজরত বেলাল বলেন, মারুফ ও নূর আলম জেলা সদরের রামনগর ইউনিয়নের বিষমুড়ি চেয়ারম্যানপাড়া এতিমখানা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে। গত শনিবার বিকেলে তারা বাড়ি থেকে মাদ্রাসায় যায়। কিন্তু এরপর তাদের আর সন্ধান পাওয়া যায়নি। তবে ওই মাদ্রাসায় তাদের বাইসাইকেল দুটি পাওয়া গেছে।

নূর আলমের বাবা মাহফুজার রহমান বলেন, ‘এ ঘটনায় আমি ও মারুফের বাবা হজরত বেলাল গতকাল রোববার নীলফামারী সদর থানায় দুটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছি।’

এ বিষয়ে কথা বললে বিষমুড়ি চেয়ারম্যানপাড়া এতিমখানা হাফিজিয়া মাদ্রাসার পরিচালক মো. মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘ওই দুই ছাত্র গত বৃহস্পতিবার ছুটিতে বাড়ি যায়। শনিবার তারা বিকেলে মাদ্রাসায় আসার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। মাদ্রাসায় তাদের বাইসাইকেল দুটি পাওয়া গেলেও তাদের কেউ দেখতে পায়নি। পরে তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ নেওয়া হয়। তাদের না পেয়ে থানায় জিডি করা হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, প্রায় এক মাস আগে এই মাদ্রাসার এক ছাত্র নিখোঁজ হলেও পরে তাকে পাওয়া গেছে। সে ঢাকায় গিয়েছিল। পরে ঢাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে নীলফামারী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আবদুর রউপ বলেন, মাদ্রাসার দুই ছাত্র নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় পৃথক জিডি হয়েছে। তাদের উদ্ধারে বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে। উদ্ধারের চেষ্টা অব্যহত আছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন