default-image

ফেনী সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের নৈশপ্রহরী মো. সফি উল্যাহ হত্যা মামলায় এক তরুণের মৃত্যুদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ বেগম জেবুন নেছা এ দণ্ডাদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ওই তরুণের নাম সোহেল হাওলাদার ওরফে ঘোড়া সোহেল (২০)। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

আদালতসংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ফেনী পৌরসভার বারাহীপুর গাজীক্রস রোডের একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন নৈশপ্রহরী সফি উল্যাহ (৬০)। তাঁর বাড়ি ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার বগাদানা ইউনিয়নের আলমপুর গ্রামে। ২০১৯ সালের ২৯ মে সন্ধ্যায় দুর্বৃত্তরা তাঁকে ঘরের মধ্যেই হত্যা করে এক লাখ টাকা ও স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে যায়। তিনি তখন বাসায় একাই ছিলেন। পরে খবর পেয়ে ফেনী থানা-পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে। পরদিন নিহত সফি উল্যাহর ছেলে মো. মোতালিব হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ফেনী মডেল থানায় হত্যা মামলা করেন। ওই মামলায় পুলিশ সোহেল হাওলাদার ও তিন কিশোরকে গ্রেপ্তার করে। পরে তাঁরা স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

বিজ্ঞাপন

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ফেনী মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, তদন্ত শেষে ২০২০ সালের ২৯ এপ্রিল আদালতে চারজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দেন। আসামিদের মধ্যে তিনজন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের নামে ফেনীর শিশু আদালতে পৃথক মামলা করা হয়েছে।

ফেনীর সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) হাফেজ আহম্মদ বলেন, নৈশপ্রহরী হত্যা মামলায় বাদীসহ ১৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহণের পর সোহেল হাওলাদার ওরফে ঘোড়া সোহেলকে মৃত্যুদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন