বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আট নেতা হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুল খালেক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুর রশিদ ফরাজী, সহসভাপতি মমতাজুর রহমান ও ছাদাত হোসেন, সারিয়াকান্দি পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এ কে এম সুরুজ্জামান ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাকিব মাহবুব।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, ওই আট নেতার মধ্যে জাহিদুল ইসলাম সাংসদ সাহাদারা মান্নানের দেবর (প্রয়াত সাংসদ আবদুল মান্নানের ছোট ভাই), মফিজুল ইসলাম সাংসদের ভাগনে (প্রয়াত সাংসদ আবদুল মান্নানের বোনের ছেলে), মমতাজুর রহমান সাংসদের মামাশ্বশুর (প্রয়াত সাংসদের মামা) ও আবদুল খালেক সাংসদের দেবর (প্রয়াত সাংসদ আবদুল মান্নানের খালাতো ভাই)। রাকিব মাহবুব সদ্য প্রয়াত সারিয়াকান্দি উপজেলার চেয়ারম্যান মুহম্মদ মুনজিল আলী সরকারের ছেলে।

দলের উপজেলা কমিটির বর্ধিত সভায় নৌকা প্রতীকের জন্য আটজনের নাম সুপারিশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সারিয়াকান্দি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র মতিউর রহমান। তিনি বলেন, বর্ধিত সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আটজনকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দের জন্য সুপারিশ করে তাঁদের নামের তালিকা জেলা কমিটির মাধ্যমে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। কে কার আত্মীয়, সেটা বিবেচনা করা হয়নি। যোগ্যতার ভিত্তিতেই প্রার্থীদের তালিকা তৈরি করে নৌকা প্রতীকের জন্য সুপারিশ কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

সারিয়াকান্দি উপজেলার চেয়ারম্যান মুহম্মদ মুনজিল আলী সরকার করোনা-পরবর্তী শারীরিক জটিলতায় ১৮ আগস্ট রাজধানীর একটি হাসপাতালে মারা যান। এতে চেয়ারম্যানের পদটি শূন্য হয়। এই শূন্য পদে ২ নভেম্বর সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন বলেন, ২ নভেম্বর সারিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে উপনির্বাচনে ৭০টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন