default-image

নড়াইল সদর উপজেলার আশার আলো মহাবিদ্যলয়ের অধ্যক্ষ রওশন আলম খান (৫৪) মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়। এর আগে সকাল নয়টার দিকে নড়াইল-যশোর সড়কের তুলারামপুর বাজার এলাকায় দুটি মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনি আহত হন।

রওশন আলম নড়াইল সদর উপজেলার তুলারামপুর দক্ষিণ পাড়ার জামশেদ আলী খানের ছেলে।

রওশন আলমের ভাই জেলা পরিষদ সদস্য শরিফুল ইসলাম জানান, তিনি বাড়ি থেকে মোটরসাইকেলে রওনা হয়ে তুলারামপুরে নড়াইল-যশোর সড়কে উঠতে যাচ্ছিলেন। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে তাঁর মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাঁকে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

তুলারামপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সোহরাব হোসেন আজ দুপুরে জানান, বিপরীত দিক থেকে আসা মোটরসাইকেলের আরোহী সাজিদ খানও (২১) আহত হয়েছেন। তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। সাজিদ যশোর শহরের মোল্লাপাড়ার মিজানুর রহমানের ছেলে। এ ঘটনার জন্য প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন