উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় ও আরামনগর কামিল মাদ্রাসা পরীক্ষাকেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভার আরামনগর কামিল মাদ্রাসা পরীক্ষাকেন্দ্রে গতকাল সকালে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন এইচএসসির (বিএম) শাখার হিসাববিজ্ঞান নীতি ও প্রয়োগ-২ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  পরীক্ষা চলাকালে বেলা ১১টায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) উপমা ফারিসা ওই কেন্দ্রে যান।

এ সময় পরীক্ষাকেন্দ্রে মুঠোফোন আনার অপরাধে ৭ ও ৮ নম্বর কক্ষের ২ পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার এবং ওই দুই কক্ষের চার পরিদর্শককে দায়িত্বে অবহেলার অপরাধে  দায়িত্বে থেকে অব্যাহতি দেওয়ার নির্দেশ দেন। পরীক্ষাকেন্দ্রের সচিব ছরোয়ার জাহান ইউএনওর নির্দেশে ওই দুই পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার ও  চার শিক্ষককে কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্বে থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন।

বহিষ্কার হওয়া দুজন সরিষাবাড়ী ডিগ্রি কলেজ ও সরিষাবাড়ী টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের বিএম শাখার পরীক্ষার্থী ছিলেন। এ ঘটনায় সরিষাবাড়ী টেকনিক্যাল অ্যান্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট ইনস্টিটিউটের শিক্ষক আনোয়ার হোসেন ভুইয়া ও রফিকুল ইসলাম এবং সরিষাবাড়ী ডিগ্রি কলেজের আহসানুল আকবর ও সেংগুয়া ফাজিল মাদ্রাসার আতিকুর রহমানকে কক্ষ পরিদর্শকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

পরীক্ষাকেন্দ্রের সচিব সরিষাবাড়ী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ছরোয়ার জাহান প্রথম আলোকে বলেন, পরীক্ষাকেন্দ্রে মুঠোফোন আনার অপরাধে দুই পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার ও দায়িত্বে অবহেলার অপরাধে চার শিক্ষককে কক্ষ পরিদর্শকের  দায়িত্বে থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন