default-image

যশোর শহরের চারখাম্বার মোড় এলাকার এক ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর নির্বাচনী কার্যালয় থেকে পর্নোগ্রাফিসহ পৃথক চারটি মামলায় চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় পুলিশ সেখান থেকে একটি পিস্তল ও ১৪টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে। গতকাল মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

নির্বাচনী কার্যালয়টি আসন্ন যশোর পৌরসভা নির্বাচনে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী রবিউল ইসলাম রবির। গ্রেপ্তার চার যুবক হলেন কাউন্সিলর প্রার্থী শহরের বেজপাড়া এলাকার রবিউল ইসলাম রবির ছেলে রাব্বি ইসলাম ওরফে শুভ (২৮), একই এলাকার মো. সবুজ (২৮), বোরহান ওরফে সাকিব (২৪) ও রামনগর এলাকার হিমেল শেখ (২৪)।

পুলিশ জানায়, এরশাদ আলী (৬০) নামের এক ব্যক্তির ভবন দখল করে নির্বাচনী কার্যালয় বানিয়েছেন যশোর পৌরসভা নির্বাচনে ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী রবিউল ইসলামে ছেলে রাব্বি ইসলাম। গতকাল রাতে রাব্বি তাঁর তিন সহযোগী সবুজ, সাকিব ও হিমেলকে দিয়ে জোর করে একটি মেয়ের সঙ্গে বাড়ির মালিক এরশাদ আলীকে ফাঁসাতে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও মুঠোফোনে ধারণ করান। এরপর তাঁরা শহরের চারখাম্বার মোড়ে ফুড গোডাউনের পাশে নির্বাচনী কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন। খবর পেয়ে রাত নয়টার দিকে পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে তাঁদের আটক করে। এ সময় পুলিশ তাঁদের কাছ থেকে একটি নাইন এম এম পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও ১৪টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করে।

বিজ্ঞাপন

যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, গ্রেপ্তার করা চার যুবক এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ। নির্বাচনী কার্যালয়টি যে ব্যক্তির ভবনে বানানো হয়েছে, তাঁর কাছ থেকে ঘরটি পাকাপোক্তভাবে লিখে নেওয়ার জন্য রাতে অস্ত্র নিয়ে হাজির হন তাঁরা। একটি মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে যান তাঁরা। ওই মেয়েকে বাড়ির মালিকের সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় ছবি তুলতে বাধ্য করান। এ ঘটনায় অস্ত্র, পর্নোগ্রাফি, মাদক ও জোর করে জমি দখলের অপরাধে পৃথক চারটি মামলা করা হয়েছে। সেই মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে চারজনকে আজ বুধবার আদালতে পাঠানো হয়েছে।

যশোর পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, পুলিশ খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অভিযান চালিয়ে অস্ত্র, মাদকসহ চার যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন