নিহত শিশুর পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকালে শিশুটি মায়ের সঙ্গে পাইলট ফার্ম এলাকায় খালার বাড়িতে বেড়াতে যায়। দুপুরের দিকে ওই শিশুর মা ও খালা একসঙ্গে রান্না করছিলেন। এ সময় শিশুটি বাড়ির লোকজনের অজান্তে হামাগুড়ি দিয়ে বাড়ির বাইরে চলে যায়। পরে শিশুটি বাড়ির সামনে থাকা পানিভর্তি একটি বালতিতে পড়ে ডুবে যায়।

পরে শিশুটির পরিবারের লোকজন শিশুকে বালতিতে উপুড় হয়ে পড়ে থাকতে দেখেন। এ সময় অচেতন অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পানছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনচারুল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘বালতির পানিতে পড়ে একটি শিশুর মৃত্যুর সংবাদ শুনে আমি তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে জানানো হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন