default-image

মাগুরায় পুলিশ পরিচয়ে দুই যুবককে তুলে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার গভীর রাতে সদর উপজেলার গোপালগ্রাম ইউনিয়নের শ্যামপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ওই দুই যুবক হলেন শ্যামপুর গ্রামের সুরত আলী মোল্লার ছেলে ইমরান হোসেন (২৫) ও একই গ্রামের মৃত ছফির উদ্দিনের ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৫)।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে বুধবার বিকেলে মাগুরা সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেওয়া যুবক ইমরান হোসেনের বড় ভাই ওমর আলী। জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, মঙ্গলবার রাত ১২টার দিকে অজ্ঞাতনামা কয়েকজন ব্যক্তি দুটি প্রাইভেট কারে তাঁদের এলাকায় আসে। এ সময় তাঁরা পুলিশ পরিচয় দিয়ে তাঁর ভাই ইমরান হোসেন ও তাঁদের প্রতিবেশী সাইফুল ইসলামকে  গাড়িতে তুলে দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। এ সময় প্রাইভেট কারে থাকা লোকজন তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে বলে জানিয়েছিলেন। পরে তিনিসহ (ওমর আলী) এলাকাবাসী মাগুরা সদর থানাসহ সংশ্লিষ্ট পুলিশ ফাঁড়িতে খবর নিয়ে এ ধরনের গ্রেপ্তার কিংবা আটকের খবর নেই বলে জানতে পারেন। বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি (ওমর আলী) বুধবার বিকেলে মাগুরা সদর থানায় জিডি করেন।

ইমরান হোসেনের বড় ভাই ওমর আলী আরও জানান, ইমরান মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ থেকে সম্প্রতি বাংলায় স্নাতকোত্তর শেষ করেছেন। তাঁদের প্রতিবেশী সাইফুল ইসলাম একজন কৃষক। এ ঘটনা কেন ঘটেছে, তা তিনি বুঝতে পারছেন না।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে বুধবার রাতে মাগুরার পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান প্রথম আলোকে বলেন, ‘ভুক্তভোগীদের পরিবারের লোকজন আমার কাছে এসেছিল। পুলিশ এমন কাউকে আটক করেনি। র‍্যাব বা অন্য কেউ তাদের নিয়ে গেছে কি না, তাৎক্ষণিকভাবে সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। থানায় জিডি হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।’

এ ব্যাপারে মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়নাল আবেদীন বলেন,‘সাধারণ ডায়েরির ভিত্তিতে অপহৃত ও অপহরণকারীদের সন্ধানসহ ঘটনার তদন্ত চলছে।’

মন্তব্য পড়ুন 0