বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষ থেকে ১৯ জনের নাম উল্লেখ করে পূর্বধলা থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই দিন রাতেই সুজন মিয়া নামের একজনকে আটক করে।

বিদ্রোহী প্রার্থী মুহাম্মদ আনিসুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘নৌকার প্রার্থীর লোকজন আমার ও আমার সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছেন। হামলাকারীরা চারজনকে কুপিয়ে জখম করেছেন। আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে তাঁরা এমন হীন কাজ করছেন। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে।’

অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আলী আহাম্মেদ বলেন, ‘কে বা কারা হামলা চালিয়েছে, তা আমার জানা নেই। তবে আমার কোনো কর্মী-সমর্থক কারও ওপর হামলা চালাননি।’

পূর্বধলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিবিরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে গতকাল রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন