বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
প্রথমবারের মতো পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ চলছে। উৎসবমুখর পরিবেশে শুরু হলেও ভোট গ্রহণ চলছে ধীরগতিতে।

সকাল সাড়ে ১০টায় দেবীগঞ্জ রিভারভিউ বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে গিয়ে জানা যায়, ২০৫টি ভোট পড়েছে। এর মধ্যে ১০৮ জন নারী ও ৯৭ জন পুরুষ ভোট দিয়েছেন। এই কেন্দ্রের মোট ভোটার ১ হাজার ১৯৩ জন।

দেবীগঞ্জ রিভারভিউ বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দিতে আসা অমর সাহা বলেন, ‘সকাল নয়টায় এসে লাইনে দাঁড়িয়েছি। এখন সাড়ে ১০টা বাজে, কিন্তু ভোট দিতে পারিনি। শুনেছি মেশিন নাকি নষ্ট হয়েছিল, এ জন্য দেরি হচ্ছে। এ ছাড়া ভোট দিতেও নাকি দেরি হচ্ছে।’

default-image

পেড়ালবাড়ি-২ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা শ্যামল বরণ রায় বলেন, ভোটকেন্দ্রে আসা ভোটারদের নতুন করে শেখাতে হচ্ছে। এ জন্য কিছুটা দেরি হচ্ছে। তবে পুরুষদের চেয়ে নারীদের ভোট নিতে একটু বেশি সময় লাগছে।

নির্বাচনে মেয়র পদে ৯ জন, কাউন্সিলর পদে ৬২ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মেয়র পদে দলীয় প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত একজন প্রার্থী নির্বাচন করছেন। অন্য আটজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করছেন। দেবীগঞ্জ পৌরসভার মোট ভোটার ১০ হাজার ৯১৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫ হাজার ৩৩৬ ও নারী ভোটার ৫ হাজার ৫৭৮ জন। পৌরসভার নয়টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ছয়টিকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। ঝুঁকিপূর্ণ ছয়টির মধ্যে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে দুটি কেন্দ্র।

সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন পরিচালনার জন্য নয়টি কেন্দ্রে নয়জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ ও আনসার সদস্যরা মোতায়েন আছেন। পুরো নির্বাচনী এলাকাজুড়ে পুলিশের ও বিজিবি চারটি করে ভ্রাম্যমাণ দল ও র‌্যাবের তিনটি ভ্রাম্যমাণ দল কাজ করছে।

দেবীগঞ্জ সদর ইউনিয়ন ও দেবীডুবা ইউনিয়নের কিছু অংশ নিয়ে ২০১৪ সালে গঠিত হয় দেবীগঞ্জ পৌরসভা। সীমানা জটিলতায় দীর্ঘদিন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। এবার প্রথমবারের মতো এই পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর আগে ১১ এপ্রিল ভোট গ্রহণের কথা থাকলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে তা স্থগিত হয়েছিল।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন