খুলনা বিভাগে করোনা রোগী

প্রথম ১০ হাজার ১২৭ দিনে, শেষ ১০ হাজার ৪৬ দিনে

বিজ্ঞাপন
default-image

খুলনা বিভাগে রোববার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ১৪৬ জনের দেহে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে ১৭৩তম দিনে বিভাগে করোনা রোগীর সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়াল।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা সোমবার এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। বিভাগে করোনা রোগীর মোট সংখ্যা এখন ২০ হাজার ২৮। শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১০ হাজারের পৌঁছাতে সময় লেগেছিল ১২৭ দিন। আর পরের ১০ হাজার রোগী শনাক্ত হলো মাত্র ৪৬ দিনে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খুলনা বিভাগের মধ্যে চুয়াডাঙ্গায় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় গত ১৯ মার্চ। ৮৫তম দিনে সংখ্যাটা হাজারে পৌঁছায়। ৩ জুলাই বিভাগে রোগীর সংখ্যা ৫ হাজার অতিক্রম করে। ২৩ জুলাই ১০ হাজার এবং ১২ আগস্ট ১৫ হাজার ছাড়ায়।

বিভাগে ২৪ ঘণ্টায় নতুন সংক্রমিত ১৪৬ জন করোনা রোগীর মধ্যে বাগেরহাটের দুজন, চুয়াডাঙ্গার ছয়জন, যশোরের ৩৭জন, ঝিনাইদহের ২১জন, খুলনার ৩১জন, কুষ্টিয়ার ৩৩জন, মাগুরার সাতজন এবং মেহেরপুর ও নড়াইলের ২ জন করে রয়েছেন। বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫ হাজার ৯৩৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন খুলনা জেলায়। এ ছাড়া বাগেরহাটে ৯২৯ জন, চুয়াডাঙ্গায় ১ হাজার ২৯৮, যশোরে ৩ হাজার ৫১২, ঝিনাইদহে ১ হাজার ৭৪২, কুষ্টিয়ায় ২ হাজার ৯১৭, মাগুরায় ৮৪৬, মেহেরপুরে ৫৫৮, নড়াইলে ১ হাজার ২৩২ ও সাতক্ষীরায় ১ হাজার ৫৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২৪ ঘণ্টায় বিভাগের মধ্যে যশোর ও ঝিনাইদহে একজন করে করোনা রোগী মারা গেছেন। এ নিয়ে বিভাগে করোনায় মৃত ব্যক্তির সংখ্যা এখন ৩৪২। এ পর্যন্ত মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে খুলনার ৮৬, কুষ্টিয়ার ৬৪, বাগেরহাটের ২১, চুয়াডাঙ্গার ৩১, যশোরের ৪০, সাতক্ষীরার ও ঝিনাইদহের ২৯ জন করে, নড়াইলের ১৭, মাগুরার ১৩ এবং মেহেরপুরের ১২ জন রয়েছেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দেওয়া তথ্যমতে, বিভাগে নতুন করে ২০১ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা ১৫ হাজার ৩০৬। শনাক্ত বিবেচনায় বিভাগে সুস্থ হওয়ার হার ৭৬ শতাংশের কিছু বেশি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন