বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রিয়া রায় বলেন, ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে তাঁরা ঐশীকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাঘারপাড়া থানা-পুলিশ এসে লাশ নিচে নামায়। ঐশীর বাঁ হাতে ধারালো ব্লেড দিয়ে কাটার চিহ্ন আছে।

ঐশী রায় পড়াশোনার পাশাপাশি সংগীত চর্চা করতেন। লোকগীতি ও দেশাত্মবোধক গানে তিনি দুবার পুরস্কার পান। বাঘারপাড়া শিল্পকলা একাডেমির সংগীতশিল্পী ছিলেন তিনি। এ বছর কলকাতার একটি টেলিভিশন চ্যানেলের রিয়েলিটি শোতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন।

বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ উদ্দীন বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, মেয়েটি আত্মহত্যা করেছেন। এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন