বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জসিম উপজেলার কোন্ডা ইউনিয়নের নতুন বাক্তারচর এলাকার বাসিন্দা। তাঁর করা মামলায় পাভেল মোল্লা (৩০), শাহিন রহমান (২৯), সায়মন চৌধুরী (৩৫), মো. জহির আরিফ (৪০), রিয়াজ উদ্দিন (৩৫), মো. আসাদসহ (৩০) অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করা হয়। তাঁরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার বাসিন্দা।

এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, আসামিরা নসরুল হামিদের ছবি অনুমতি ব্যতীত সংযুক্ত করে একাধিক ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে কটূক্তি করেছেন। তাঁরা রাজনৈতিকভাবে প্রতিমন্ত্রীকে ঘায়েল করার উদ্দেশ্যে মানহানিকর, মিথ্যা, বানোয়াট শব্দ চয়ন করেছেন। ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করে সেই পোস্ট ভাইরাল করতে তাঁদের সহযোগীদের মাধ্যমে শেয়ার, লাইক ও কমেন্ট করেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে রিয়াজ উদ্দিন ও সায়মন চৌধুরী বলেন, তাঁরা এসবের কিছুই জানেন না। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে তাঁদের এই মামলায় ফাঁসানো হয়েছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, বুধবার পুলিশ অভিযান চালিয়ে পাভেল মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে। বিকেলে তাঁকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন জানানো হয়। আদালত পাভেলের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তাঁকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন