আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে উৎসবের উদ্বোধন করেন কবি ও কথাসাহিত্যিক বজলুর করিম বাহার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান এবং চলচ্চিত্র পরিচালক আবু সাইয়ীদ।

উৎসবে বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, চীন, তাইওয়ান, ইতালি ও উগান্ডার মোট ৪৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।

উৎসবের পরিচালক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা সুপিন বর্মণ বলেন, দ্বিতীয়বারের মতো বগুড়ায় আয়োজিত আন্তর্জাতিক এই চলচ্চিত্র উৎসবের এবারের জুরিবোর্ডের সদস্য বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নির্মাতা প্রসূন রহমান ও মেহেদী হাসান, ভারতের সোম চক্রবর্তী, নেপালের শবনম মুখিয়া ও ইরানের মাহাদী গাদারি। ১৫টি দেশ থেকে ১৮০টি চলচ্চিত্র জমা পড়ে। জুরিবোর্ড উৎসবে প্রদর্শনের জন্য ৮টি দেশের ৪৫টি চলচ্চিত্র নির্বাচন করে। এসব চলচ্চিত্রের মধ্যে পাঁচটি ক্যাটাগরিতে পাঁচটি সেরা চলচ্চিত্রকে পুরস্কার দেওয়া হবে।

আয়োজকেরা জানান, দেশীয় চলচ্চিত্রের বিকাশ ও সমকালীন চলচ্চিত্রের দর্শক তৈরির লক্ষ্যে এই উৎসবের আয়োজন। উৎসবে ২৫ জন চলচ্চিত্র নির্মাতা অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

আজ উদ্বোধনী দিনে ১৩টি চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়েছে। প্রদর্শিত চলচ্চিত্রের মধ্যে ছিল বাংলাদেশের ‘দ্য ডিভাইডার’, ‘দ্য রিলিজিয়াস’, ‘টিনর’, ‘লাইফ অর নম্বর’, ‘ত্রিকোণমিতি’, ‘সেভেন বিউটিফুল হর্স’, ভারতের ‘একা এক’, ‘দ্য অ্যাবনরমাল’, ‘দ্য রুপি নোট’, ‘দ্য সুইম অব লাইফ’, ‘মুনসন ক্লিপস’, নেপালের ‘আয়না’ এবং শ্রীলঙ্কার ‘ডিয়ার গ্র্যান্ড ড্যাড’।

২৫ ডিসেম্বর উৎসব শেষ হবে। সমাপনী দিনে সেরা চলচ্চিত্রগুলো ঘোষণা করা হবে এবং পুরস্কার দেওয়া হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন