default-image

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় ছোট ছেলেকে ৪০ শতাংশ জমি লিখে দিয়েছিলেন সত্তর বছর বয়সী মা জোহুরা বেগম। এ কারণে মাকে হত্যা করেন বাকি দুই ছেলে। এ কাজে জড়িত ছিলেন বৃদ্ধার দুই পুত্রবধূও। এই হত্যা মামলায় বৃদ্ধার দুই ছেলে ও দুই পুত্রবধূকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁদের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

আজ বুধবার বগুড়ার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ বেগম আসমা মাহমুদ এই রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার তালিকপুর গ্রামের জহির উদ্দিন (৫৮), তাঁর স্ত্রী রেহেনা বেগম (৫৩), জহির উদ্দিনের ছোট ভাই ইয়াসিন আলী (৫৫) ও তাঁর স্ত্রী রহিমা বেগম (৪৮)। রায় ঘোষণার সময় তাঁরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের সরকারি কৌঁসুলি নাসিমুল বারী প্রথম আলোকে বলেন, শিবগঞ্জ উপজেলার তালিকপুর গ্রামের বৃদ্ধা জোহুরা বেগম তাঁর ছোট ছেলেকে জমি লিখে দিলে অন্য দুই ছেলে ও দুই পুত্রবধূ তাঁকে ২০০৮ সালের ৭ জুলাই শ্বাস রোধ করে হত্যার পর লাশ বাড়ির পাশে ফেলে রাখেন। পরদিন লাশ উদ্ধার হলে ছোট ছেলে জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে বড় দুই ভাই ও তাঁদের স্ত্রীকে আসামি করে শিবগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন