বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আমিনুল ইসলাম বগুড়া মোটরমালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। তিনি সদর উপজেলা যুবলীগের সহসভাপতিও ছিলেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মাহবুব হত্যা মামলায় অভিযুক্ত আমিনুল ইসলাম উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিলেন। এর মধ্যে মামলার অভিযোগপত্র আদালত আমলে নেওয়ায় নিম্ন আদালতে তাঁর হাজিরা নির্ধারণ হয়। গতকাল তিনি হাজিরা দিতে এলে তাঁর জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানো হয়।

২০১৯ সালের ১৪ এপ্রিল রাতে বগুড়ার উপশহর বাজার এলাকায় দুর্বৃত্তরা বিএনপি নেতা মাহবুব আলমকে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। এ ঘটনায় ১৬ এপ্রিল নিহত মাহবুব আলম শাহীনের স্ত্রী আকতার জাহান শিল্পী বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেন। মামলায় আমিনুল ইসলামকে প্রধান আসামি করা হয়। মামলায় বলা হয়, বগুড়া মোটরমালিক গ্রুপের বিরোধের জেরেই মাহবুবকে হত্যা করা হয়েছে।

হত্যাকাণ্ডের দুই সপ্তাহের মাথায় ঢাকা থেকে আমিনুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তদন্ত শেষে পুলিশ আমিনুলসহ ১৪ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। এই মামলায় আদালতে ১৬৪ ধারায় দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে চার আসামি জানিয়েছেন, আমিনুলের নির্দেশেই মাহবুবকে হত্যা করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন