বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চরমোনাই দরবারের মাহফিলে যোগ দিতে যাওয়ার পথে ২২ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ১টার দিকে ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটে। ট্রলারটি সিরাজগঞ্জ থেকে চরমোনাই ইউনিয়নের নলচরসংলগ্ন আড়িয়াল খাঁ নদে এলে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ ধাক্কা দিলে ডুবে যায়। এতে ৪২ জন মুসল্লি ও ৩ জন মাঝিমাল্লা ছিলেন। দুর্ঘটনার পর ৪০ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। পরে তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর দুজন নিখোঁজ ছিলেন। তাঁদের একজনের লাশ আজ পাওয়া গেল। বাকি একজন এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

কোস্টগার্ড সূত্র জানায়, শনিবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে আড়িয়াল খাঁয় একটি লাশ ভাসতে দেখে তা উদ্ধার করেন কোস্টগার্ডের সদস্যরা। পরে ছবির সঙ্গে মিলিয়ে প্রাথমিকভাবে শনাক্ত হয় এই ব্যক্তি সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামের মৃত কছিমুদ্দিম শেখের ছেলে রফিকুল ইসলাম। তাঁর স্বজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। তাঁরা আসার পর পরিচয় পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বরিশাল নৌ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসনাত জামান বলেন, আজ একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট চারজনের মরদেহ উদ্ধার করা হলো। এখনো একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন