default-image

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে অনলাইন রেডিও স্টেশন ‘বিইউ রেডিও’। বিশ্ববিদ্যালয়ের একঝাঁক উদ্যমী শিক্ষার্থীর প্রচেষ্টায় ক্যাম্পাসভিত্তিক ওয়েব বেইজড এই রেডিও স্টেশন গতকাল রোববার রাত ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত সরাসরি অনুষ্ঠান সম্প্রচার করে।

স্টেশনটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থী এই অনলাইন রেডিওর মাধ্যমে তাঁদের সৃজনশীলতা প্রকাশের সুযোগ পাবেন। গতকাল উদ্বোধনী দিনের অনুষ্ঠানসূচিতে ছিল রেডিওটি প্রতিষ্ঠার পেছনে থাকা কলাকুশলীদের গল্প ও আড্ডা। এরপর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাম্প্রতিক খবর, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সাফল্যের নানা খবর, সফল ব্যক্তিদের সাক্ষাৎকার, ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের নিয়ে গল্প-আড্ডা, আরজে আওয়ার, গান, কবিতা ইত্যাদি সম্প্রচার করা হয়।

শিক্ষার্থীরা বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম এই অনলাইন রেডিও স্টেশনটির প্রতিষ্ঠাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের পঞ্চম ব্যাচের শিক্ষার্থী আবু উবায়দা। রেডিও স্টেশন প্রতিষ্ঠার কথা বলতে গিয়ে আবু উবায়দা বলেন, ২০১৭ সালে তিনি যখন প্রথম বর্ষের ছাত্র, তখন সহপাঠী ও বন্ধু আকিব জাভেদকে তিনি ক্যাম্পাসভিত্তিক রেডিও চালুর ইচ্ছার কথা জানান। আকিব এতে খুব আগ্রহ ও উৎসাহ দেখান। এরপর তাঁরা দুজনে মিলে কাজ শুরু করেন। তাঁরা ওয়েবভিত্তিক ক্যাম্পাস রেডিও চালুর চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিয়ে পরীক্ষামূলক সম্প্রচারও শুরু করেন। কিন্তু ক্যাম্পাসে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সুবিধা না থাকায় এবং রেডিওতে কাজ করার কলাকুশলী না পাওয়াসহ নানা সীমাবদ্ধতার কারণে সেটি আর সম্প্রচারে রাখা যায়নি। কিন্তু তাঁরা হাল ছাড়েননি। এরপর দ্বিতীয় দফায় ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে আবারও সম্প্রচারের উদ্যোগ নেন। এবার তাঁরা ব্যাপক সাড়া পান। এরপরই তাঁরা আনুষ্ঠানিকভাবে সম্প্রচারে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

আবু উবায়দা ছাড়াও বিইউ রেডিওর সহপ্রতিষ্ঠাতা হিসেবে আছেন তানভীর আহমেদ, আকিব জাভেদ ফাহিম, জালাল উদ্দীন রুমি, তানজুম, রেজওয়ানা আফরোজ, চিন্ময় মণ্ডল, তৌহিদ হৃদয়, সুব্রত সাগর, ফজলে রাব্বি, মাহমুদুর রহমান, বাহাউদ্দীন, জুয়েল হোসেন, সামিয়া জেরিন, মরিয়ম ইয়াসমিন, ফাইয়াজ আহমেদ, নেওয়াজ শরীফ, ইমরান জাহিদ, রনি হাওলাদার ও সাইদুজ্জামান শোয়েব। উদ্যোক্তারা আশা করছেন, ওয়েবভিত্তিক এই রেডিও স্টেশনের মধ্য দিয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সৃজনশীলতা বিকাশের পথ সুগম হবে। পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি, শিক্ষা, সচেতনতা বিকাশে এই স্টেশন গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0