আজ দুপুরে উত্তরা গণভবন ও নাটোর রাজবাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, ভবন দুটিকে বর্ণিল সাজে সাজানো হচ্ছে। ভাঙা রাস্তাঘাট সংস্কার করা হচ্ছে। সড়কের দুই পাশে ভারতের বিশিষ্টজনদের ছবিসংবলিত তোরণ ও ব্যানার স্থাপন করা হয়েছে। উত্তরা গণভবন ও রাজবাড়ির প্রবেশপথ ও স্থাপনাসমূহ ঘষেমেজে নতুন রঙের প্রলেপ দেওয়া হচ্ছে। ফুলের বাগানগুলোর শোভাবর্ধন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে দুই দিনের জন্য উত্তরা গণভবনে দর্শনার্থীদের প্রবেশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

মিলনমেলা উদ্‌যাপন কমিটির প্রধান তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ বলেন, ‘ভারত বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু। তাদের সঙ্গে বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে এই সাংস্কৃতিক মিলনমেলার আয়োজন করা হয়েছে। মিলনমেলা সফল করতে জেলা প্রশাসন ও আয়োজক সংগঠন সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে। আশা করছি মিলনমেলা উৎসবমুখর ও সার্থক হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন