স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে বিভিন্ন সময়ে ইসলাম ধর্ম অবমাননা করে একটি ফেসবুক আইডি থেকে পোস্ট দেওয়া হচ্ছিল বলে অভিযোগ ওঠে। স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওই তরুণ (২৫) ভিন্ন নামের এই ফেসবুক আইডি থেকে এসব পোস্ট দিচ্ছিলেন বলে সন্দেহ করেন স্থানীয় লোকজন।

স্থানীয় লোকজনের ভাষ্য, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে ওই তরুণ ভারতে ছিলেন। এক সপ্তাহ আগে তিনি এলাকায় ফিরলে ফেসবুকে দেওয়া আগের পোস্ট নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে ওই তরুণের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গতকাল সোমবার রাতে মিছিল বের করেন স্থানীয় লোকজন। মিছিল থেকে উত্তেজিত জনতা ওই তরুণের বাড়িতে হামলা করে ভাঙচুর করে এবং উঠানে থাকা খড়ের গাদায় আগুন দেয়। তবে ঘটনার সময় ওই তরুণ বাড়িতে ছিলেন না।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার কে এম আরিফুল হক মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ঘটনার পর তাঁরা সারা রাত ওই এলাকায় ছিলেন। বর্তমানে সার্বিক পরিস্থিতি শান্ত আছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। একটি বসতঘর ভাঙচুর ও খড়ের গাদায় আগুন দেওয়া হয়েছে। তবে কেউ আহত হননি।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত সাতজনকে আটক করা হয়েছে। সন্দেহভাজন আরও কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জড়িত অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।