বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে নেজাম উদ্দিন বলেন, শিক্ষক রহমত উল্লাহ সদরঘাট এলাকার পিটিআইয়ের (প্রাইমারি ট্রেনিং ইনস্টিটিউট) প্রশিক্ষণার্থী। সকালে পিটিআই যাওয়ার জন্য অক্সিজেন এলাকা থেকে নিউমার্কেট অভিমুখী একটি বাসে ওঠেন। এ সময় অতিরিক্ত ভাড়া আদায় নিয়ে চালকের সহকারীর সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে তিনি স্টেশন রোডের বটতলী এলাকায় নেমে যেতে চাইলে নামতে না দিয়ে পুরাতন রেলস্টেশন এলাকায় নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। এরপর সহকারী ধাক্কা দিয়ে চলন্ত বাস থেকে তাঁকে ফেলে দেন। এরপর পায়ের ওপর দিয়ে বাস চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। আশপাশের লোকজনের সহায়তায় রক্ষা পান তিনি। পরে তাঁকে উদ্ধার করে মেহেদীবাগ এলাকার এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ওই হাসপাতালের চিকিৎসক ও নির্বাহী পরিচালক আমজাদ হোসাইন প্রথম আলোকে বলেন, রহমত উল্লাহর শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত রয়েছে। তাঁর কোমরের বাঁ পাশের হাড়ে চিড় ধরা পড়েছে। তাঁকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আহত শিক্ষকের স্বজন মো. রুবেল বলেন, রহমত উল্লাহ ৮ নম্বর রুটের সৌরভ পরিবহনের একটি বাসে করে অক্সিজেন এলাকা থেকে নিউমার্কেট যাচ্ছিলেন। পথে তাঁকে ধাক্কা দিয়ে চালকের সহকারী ফেলে দেন।

এ ঘটনায় জড়িত বাসচালক ও সহকারীকে শনাক্ত করা হয়েছে জানিয়ে ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, বাসটি জব্দ করা হয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন