বিজ্ঞাপন

প্রত্যক্ষদর্শী ও নিহত ফারজানার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কানন খন্দকারের ঘরের সঙ্গে প্রায় লাগোয়া আকরাম ভূঁইয়ার মাটির ঘর। নতুন ঘর নির্মাণের জন্য আকরাম ভূঁইয়ার মাটির ঘরটি ভাঙা হচ্ছিল। একপর্যায়ে আজ বিকেলে ওই মাটির ঘরের একটি দেয়াল কাত হয়ে কানন খন্দকারের টিনের ঘরের ওপর পড়ে যায়।

এ সময় ওই টিনের ঘরে অবস্থানকারী পাঁচজন দেয়ালের নিচে চাপা পড়েন। পরে আহত ব্যক্তিদের বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ফারজানা আক্তারকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে গুরুতর আহত চারজনকে বেলাব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জের জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তাঁদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর পরিস্থিতি আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে বলে জানা গেছে।

বেলাব থানার উপপরিদর্শক মো. বিল্লাল হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে নিহত শিশুর লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন