বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মরিয়ম একই উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নের কুমড়াইল গ্রামের এনায়েত চৌধুরীর মেয়ে। তাঁর চার মেয়ে ও এক ছেলের মধ্যে সে দ্বিতীয় সন্তান।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মরিয়মের ভগ্নিপতি আরিফ শেখ সৌদি আরবপ্রবাসী। প্রায় দেড় মাস আগে বোয়ালমারী উপজেলার সাতৈর ইউনিয়নের বেড়াদি গ্রামের পশ্চিমপাড়া মহল্লা এলাকায় মরিয়ম বড় বোনের বাড়িতে আসে। সে ওই গ্রামের একটি কওমি মাদ্রাসায় ভর্তি হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে পুলিশ খবর পেয়ে ওই ছাত্রীর বোনের বাড়ি থেকে তার মরদেহ বৈদ্যুতিক পাখার অ্যাঙ্গেলের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। পরে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকের কলেজের মর্গে পাঠিয়েছে।

সাতৈর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মুজিবুর রহমান জানান, এ অপমৃত্যুর খবর শোনার পর বোয়ালমারী থানার পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ পরে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

বোয়ালমারী থানার উপপরিদর্শক উত্তম কুমার সেন বলেন, মরিয়মের লাশের সুরতহাল করার সময় তার গলার বাঁ পাশে আঁচড়ের দাগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় মরিয়মের বাবা রূপাপাত ইউনিয়নের কুমড়াইল গ্রামের এনায়েত চৌধুরী বাদী হয়ে আজ শুক্রবার বোয়ালমারী থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন