বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অটোচালক, শ্রমিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকালে নগরের রূপাতলী এলাকায় পুলিশ হলুদ অটো আটকের অভিযান শুরু করে। এ সময় বেশ কয়েকটি অটো আটক করা হলে সেখানে অটোচালকেরা জড়ো হন। বেলা ১১টা থেকে ১টা পর্যন্ত রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডসংলগ্ন গোলচত্বর এলাকায় সড়কে শুয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন অটোচালক ও শ্রমিকেরা। এতে বরিশালের সঙ্গে পটুয়াখালী, বরগুনাসহ বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

অটোচালক ও শ্রমিকেরা জানিয়েছেন, সকালে হঠাৎ করে পুলিশ অভিযান চালায়। তাঁদের ছয়টি অটোর ছয়জন চালককে মোট ৫ হাজার টাকার মামলা দেওয়া হয়। এতে তাঁরা ক্ষুব্ধ হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। তাঁদের দাবি ছিল মামলা প্রত্যাহার করে অটোগুলো ছেড়ে দেওয়ার। পুলিশ তাঁদের দাবি মেনে নেয়। পরে বেলা ১টার দিকে সড়ক থেকে তাঁরা সরে যান।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি (ট্রাফিক) শেখ মো. সেলিম বলেন, নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে শুক্রবার সকালে রূপাতলী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অবৈধ গাড়ি পার্ক করায় ছয়টি হলুদ অটো আটক করা হয়। এতে শ্রমিকেরা বিক্ষোভ করেন। পরে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন