পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তারেকুল ইসলাম ওরফে রুবেল আজ সকালে নিজ বাড়ির পশ্চিম পাশে নিজেদের মাছের ঘেরে যান। সকাল সাড়ে আটটার দিকে বজ্রপাতে তিনি নিহত হন। স্থানীয় লোকজন মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসছিলেন। এ সময় তাঁর ছোট ভাই সোহেল হোসেন সেখানে যান। বড় ভাইয়ের লাশ দেখে সোহেল হঠাৎ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। দুজনকে উদ্ধার করে ফরিদগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁদের মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের চিকিৎসক মোজাম্মেল হোসেন বলেন, হাসপাতালে আনার পর দুজনকেই মৃত পাওয়া যায়। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ লাশ দুটি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে মোজাম্মেল হোসেন আরও বলেন, বড় ভাই বজ্রপাতে মারা গেছেন। লাশ দেখতে গিয়ে মারা গেছেন ছোট ভাই। ছোট ভাই সোহেল হোসেন কোনো রোগে ভুগছিলেন কি না, তা স্বজনেরা জানাতে পারেননি।

ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, পুলিশ দুজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। তবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও তাঁর স্বজনেরা ছোট ভাই সোহেলের স্বাভাবিক মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ কারণে পরিবারের কাছে তাঁর লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তারেকুল ইসলামের লাশ চাঁদপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন