বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কুষ্টিয়া রোটারি ক্লাবের পক্ষে সংগঠনটির সভাপতি রোটারিয়ান কামরুজ্জামান অ্যাম্বুলেন্সের প্রতীকী চাবি গ্রহণ করেন। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ আসনের সাংসদ মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংসদ সেলিম আফতাফ জর্জ, আ ক ম সরওয়ার জাহান, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দীন খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা কুষ্টিয়ায় ভারতীয় ভিসা সেন্টার স্থাপনে জোর দাবি জানান। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী বলেন, ‘কুষ্টিয়ায় ভিসা সেন্টার নির্মাণের দাবি দীর্ঘদিনের। অনেক দিন ধরে এই অঞ্চলের মানুষ এ দাবি জানিয়ে আসছেন। বিষয়টি আমরা সক্রিয়ভাবে বিবেচনা করতে চাই।’

বিক্রম দোরাইস্বামী আরও বলেন, এ অঞ্চলের সঙ্গে ভারতের দীর্ঘদিনের একটি সুষম ও মসৃণ সম্পর্ক রয়েছে; রয়েছে ব্যবসা ও বাণিজ্যিক সম্পকে৴র একটি বড় অংশীদারত্ব। তাই এ অঞ্চলকে ঘিরে এই ধরনের চিন্তা খুবই ইতিবাচকভাবে বিবেচনায় আনা যেতে পারে।

তিনি বলেন, অনেক অভিন্ন স্বার্থ রয়েছে দুই দেশের। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র কলকাতার খুব নিকট দূরত্বে। কুষ্টিয়াকে কেন্দ্র করে উভয় দেশের মধ্যে বাণিজ্যের প্রসার ঘটতে পারে, যেমন আন্তর্জাতিক মানের ট্যুরিস্ট লজ। এসব হলে এ অঞ্চলের মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন হবে।

ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনের রাজশাহী থেকে দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, জীবন রক্ষাকারী আধুনিক যন্ত্রপাতি সংবলিত নতুন অ্যাম্বুলেন্সটি জরুরি চিকিৎসাসেবা এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যাওয়ার পথে রোগীদের মানসম্মত সেবাদানের উপযোগী। এই অ্যাম্বুলেন্সটি বাংলাদেশকে ১০৯টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স সরবরাহ কর্মসূচির একটি অংশ, যা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ২০২১ সালের মার্চে বাংলাদেশ সফরের সময় ঘোষণা করেছিলেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন