default-image

টানা তৃতীয়বারের মতো পাবনা পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপির হয়ে মেয়র পদের প্রার্থী হয়েছেন নূর মোহাম্মদ। তিনি দলটির জেলা শাখার আহ্বায়ক কমিটির সদস্য। আগের দুই নির্বাচনে হেরেছিলেন। ভোটের দিন পরিবেশ সুষ্ঠু থাকলে এবারের নির্বাচনে জয়ের আশা তাঁর। প্রচারণায় বাধা পাওয়ার অভিযোগও তোলা হয়নি তাঁর পক্ষ থেকে। তবে কত দিন এমন পরিবেশ বজায় থাকবে, সে শঙ্কার পাশাপাশি নিজ দলের নেতা-কর্মীদের অবস্থান ও নির্বাচনী পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেছেন প্রথম আলোর সঙ্গে।

আগের দুই নির্বাচনে কাঙ্ক্ষিত ফল মেলেনি। তৃতীয় দফায় অংশ নেওয়ার পেছনে অনুপ্রেরণা কী?

বর্তমান সরকার দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির ওপর দমন–পীড়ন চালাচ্ছে। বিগত নির্বাচনগুলোয় জনগণকে ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। ফলে, আমাদের কাঙ্ক্ষিত ফল মেলেনি। ভোটারদের গণতান্ত্রিক অধিকার ছিন্ন করা হয়েছে। গণতন্ত্র রক্ষা ও জনগণের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যেই আবার নির্বাচনে লড়ছি।

ভোটারদের কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

ধানের শীষ একটি জনপ্রিয় প্রতীক। দেশের মানুষ সরকারের দমন–পীড়ন থেকে রক্ষা পেতে ধানের শীষে ভোট দিতে চায়। ফলে, জনগণের বিপুল সাড়া আছে। সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হব বলে আশা করি।

এবারের নির্বাচনের পরিবেশ কেমন?

এখন পর্যন্ত নির্বাচনের পরিবেশ ভালো আছে। স্বচ্ছন্দে প্রচার-প্রচারণা চালাতে পারছি। তবে বিগত দিনের অভিজ্ঞতায় কত দিন এমন ভালো পরিবেশ থাকবে, তা নিয়ে আমরা শঙ্কায় আছি।

বিএনপির জেলা শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠন নিয়ে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কথা শোনা গেছে। দলের নেতা-কর্মীদের সমর্থন কেমন আছে?

বিএনপিতে কোনো কোন্দল নেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে বিএনপির প্রত্যেক নেতা-কর্মী এককাট্টা আছেন। নির্বাচনে সবাই আন্তরিকভাবে কাজ করছেন।

নির্বাচন ও পৌরসভার সমস্যা নিয়ে আপনার পরিকল্পনা জানতে চাই।

নগরকে সুন্দর করতে প্রথমেই দরকার একটি পরিকল্পিত ও আধুনিক নগর-পরিকল্পনা। নগরবিদ ও সুধীসমাজকে নিয়ে একটি নগর-পরিকল্পনা করতে চাই। সে পরিকল্পনা অনুযায়ী পাবনা পৌরসভাকে একটি সুন্দর পৌরসভা হিসেবে উপহার দেব। গড়তে চাই মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত পৌরসভা।

পাবনা পৌরবাসীর মূল সমস্যা ইছামতী নদীর দখল-দূষণ। এ ছাড়া জলাবদ্ধতা ও যানজট সমস্যাও আছে। এসব নিয়ে কিছু ভেবেছেন?

ইছামতী খনন এখন সময়ের দাবি। খনন করে পাশ দিয়ে নতুন রাস্তা করা গেলে শহরের যানজট ও জলাবদ্ধতা কমে যাবে। নির্বাচিত হলে বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ করতে চাই।

সাক্ষাৎকারের সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

আপনাকেও ধন্যবাদ।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন