বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, হিংসা দিয়ে পৃথিবীতে কখনো কোনো সমস্যার সমাধান হয়নি। হিংসা থেকে মানুষকে দূরে রাখাই ছিল মহাত্মা গান্ধীর অন্যতম মূলমন্ত্র। সংঘাতমুক্ত সমাজ, সংঘাতমুক্ত পৃথিবী ও যুদ্ধমুক্ত বিশ্ব গঠনে মানুষকে গভীরভাবে অনুপ্রাণিত করে মহাত্মা গান্ধীর দর্শন।

মহাত্মা গান্ধীর ১৫২তম জন্মবার্ষিকী ও আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস আজ ২ অক্টোবর। ২০০৭ সাল থেকে দিনটিকে আন্তর্জাতিক অহিংসা দিবস হিসেবেও পালন করা হচ্ছে।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের সভাপতি বিচারপতি সৌমেন্দ্র সরকার। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী, সাবেক মন্ত্রী সাংসদ আসাদুজ্জামান নূর, সাংসদ আরমা দত্ত, বাংলাদেশে জাতিসংঘের অন্তর্বর্তীকালীন আবাসিক সমন্বয়কারী টুয়োমা পুটিআইনেন, আইএলওর কান্ট্রি ডিরেক্টর ও ইউএনডিপির আবাসিক প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জি, গান্ধী আশ্রম ট্রাস্টের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য মেজবা উদ্দিন সিরাজ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম খান, পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের নবনিযুক্ত আহ্বায়ক ও সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ এইচ এম খায়রুল আনম চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অতিথির বক্তৃতায় ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেন, গান্ধীজির জীবন ও বাণী আজও প্রাসঙ্গিক। তিনি ২০১৯ সালে মহাত্মা গান্ধীর সার্ধশততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত জাতিসংঘের একটি অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য স্মরণ করে বলেন, শেখ হাসিনা বলেছেন, গান্ধীজির সাধারণ মানুষের প্রতি ভালোবাসা ও অহিংসার আদর্শ তৎকালীন শাসকগোষ্ঠীর নিপীড়ন ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামের দৃষ্টিভঙ্গি গঠনে অবদান রেখেছিল।

ভারতীয় হাইকমিশনার মুজিব বর্ষ উদ্‌যাপনকালে বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনী বাংলাদেশে প্রদর্শিত হওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেন। তিনি ঢাকায় চলমান বঙ্গবন্ধু-বাপু ডিজিটাল প্রদর্শনী দেখার জন্য দর্শকদের আমন্ত্রণ জানান। প্রদর্শনীটি ১১ অক্টোবর পর্যন্ত ঢাকায় উন্মুক্ত থাকবে এবং পরে চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা ও রাজশাহীতে হবে। তিনি বলেন, ‘প্রদর্শনীটি আমাদের দুই দেশের জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও উত্তরাধিকারের মতো একটি অনন্য বিষয়কে উপস্থাপন করেছে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন