বিজ্ঞাপন

স্থানীয় চালা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য ও আবিরের চাচা ফারুক হোসেন বলেন, প্রায় এক যুগ আগে আবিরের মা তার বাবা আবদুর রশিদকে ছেড়ে চলে যান। এরপর তিনি অন্যত্র বিয়ে করেন। তবে আবির ও তার বড় বোন রশিদের কাছে থেকে যায়। প্রায় ৯ বছর আগে আবিরের বাবা আবদুর রশিদ দ্বিতীয় বিয়ে করেন। দ্বিতীয় স্ত্রীর ঘরে এক সন্তান রয়েছে। নানা বিষয়ে পারিবারিক কলহ চলছিল। গতকাল শুক্রবার রাতে একটি কক্ষে আবিরকে ঝুলতে দেখেন বাড়ির লোকজন। খবর পেয়ে আজ সকাল নয়টার দিকে ওই বাড়ি থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় আবিরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

হরিরামপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুঈদ চৌধুরী বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে ওই স্কুলছাত্র আত্মহত্যা করে থাকতে পারে। তবে ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন