বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন জাহানূর মিয়া। এতে স্থানীয় কয়েকজন হেফাজত–সমর্থক ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। সপ্তাহখানেক আগে জাহানূর সুনামগঞ্জ থেকে গ্রামের বাড়িতে যান। গতকাল বিকেল পাঁচটার দিকে তিনি রাজাপুর বাজারে যান। এ সময় জাহানূর মিয়ার কাছে ওই পোস্টের কারণ জানতে চান একই ইউনিয়নের রহমতপুর গ্রামের এমদাদুল হক (৩৭), সুলতান রেজা (২৪) ও রাজাপুর রংপুরহাটি গ্রামের সাইদুর রহমান (২১)। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে ওই তিনজন জাহানূরকে মারধর করেন।

এ বিষয়ে জানার জন্য অভিযুক্ত এমদাদুল হক, সুলতান রেজা ও সাইদুর রহমানের সঙ্গে যোগযোগের চেষ্টা করা হলে তাঁদের মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ধরমপাশা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খালেদ চৌধুরী মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, যুবককে মারধর করার মামলায় আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন