বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মিজানুর রহমান দাবি করেছেন, পারিবারিক বিরোধের কারণে হয়তো তাঁর দুই চাচাতো ভাই প্রার্থী হয়েছেন। কিন্তু ইউনিয়নের জনগণ তাঁর পক্ষেই আছেন।

কাজী মিজান ও নিজাম উদ্দীনের দাবি, মানুষ নৌকা দেখে ভোট দেবেন না; ভোট দেবেন ব্যক্তি দেখে। তাই সুষ্ঠু ভোট হলে তাঁরাও জিততে পারেন।

এদিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বলেন, নৌকার বিরুদ্ধে যেসব নেতা-কর্মী প্রার্থী হয়েছেন, তাঁদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। প্রত্যাহার না করলে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে।

মির্জাগঞ্জ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ২৬টি মনোনয়ন পত্র জমা পড়েছে। সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৬৩ ও সাধারণ সদস্য পদে ১৯৪ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ১১ নভেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন