বিজ্ঞাপন

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী হয়ে ঢাকা পর্যন্ত প্রতিদিন চলাচল করবে বিশেষ এই ট্রেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জ স্টেশন থেকে বিকেল সাড়ে চারটায় ট্রেনটি ছাড়বে। রাজশাহী স্টেশনে পৌঁছাবে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়। ঢাকার কমলাপুর স্টেশনে পৌঁছাবে রাত দুইটায়। আম নামিয়ে রাতেই ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

এর আগে ১৭ মে ট্রেন চালু করার দিন ঠিক করার জন্য পশ্চিমাঞ্চল রেলের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা (পাকশি) নাসির উদ্দিন রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জে সফর করেন। তিনি ব্যবসায়ীদের মতামত সংগ্রহ করেন। আম ব্যবসায়ী ও চাষিদের মতামতের ভিত্তিতেই ট্রেন চালুর দিন ঠিক করা হয়েছে। কারণ, এ সময় আমের ভরা মৌসুম শুরু হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা আহসান উল্লাহ ভূঁইয়া জানান, ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনের পাঁচটি ওয়াগনে (পণ্যবাহী বগি) পণ্য পরিবহন করা হবে। তিনি বলেন, প্রতিটি ওয়াগনে ৪০ টন করে মোট ২০০ টন আম পরিবহন করা যাবে। আম পরিবহনে রেলওয়ের কোনো লোকসান হবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ধারণক্ষমতা অনুযায়ী আম পরিবহন করতে পারলে রেলওয়ের লোকসান হবে না।

তবে জিএম মিহির কান্তি গুহ বলেন, রেলওয়ের লাভ-লোকসানের বিষয় নয়, এটা দেশের অর্থনীতির জন্য বড় একটা লাভ।

এ ট্রেন মালামাল তোলার জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ, আমনুরা, রহনপুর, কাঁকন, রাজশাহী, হরিয়ান, সরদাহ, আড়ানী, আবদুলপুর স্টেশনে থামবে।

গত বছর ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনটি প্রথমবারের মতো চালু করা হয়। সে বছর জুনে ৫৯৮ টন এবং জুলাই মাসে ২৫৯ টন আমসহ কাঁচামাল পরিবহন করা হয়। ৮৫৭ টন পণ্য পরিবহন করে রেল কর্তৃপক্ষ আয় করে ৯ লাখ ২৯ হাজার ৮৬৯ টাকা। করোনা পরিস্থিতির কারণে রাজশাহী আম, লিচুসহ সবজিজাতীয় পণ্য পরিবহনের সুবিধার্থে বাংলাদেশ রেলওয়ে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন নামের এ বিশেষ ট্রেন গত বছর চালু করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন