বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে ২ জানুয়ারি ময়মনসিংহ জিলা মটর মালিক সমিতি ও ময়মনসিংহ চেম্বার অব কর্মাস ময়মনসিংহ প্রেসকাবে সংবাদ সম্মেলন করে। সেখানে ১৫ জানুয়ারি মধ্যে সড়কের ওই অংশ চলাচলের উপযোগী করা না হলে বাস ও ট্রাক বন্ধের হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল।

ওই সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সড়কের গাজীপুরের অংশ বেহাল থাকার কারণে বাস ও ট্রাকের চলাচল সম্ভব হচ্ছে না। বেহাল সড়কের কারণে বাস ও ট্রাকে জ্বালানির অতিরিক্ত অপচয় হচ্ছে। জ্বালানি অপচয়ের এক পরিসংখ্যান উপস্থাপন করে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, প্রতিদিন গড়ে ১ কোটি ৬১ টাকার বেশি জ্বালানির অপচয় হয়। এ ছাড়া গাড়ির যন্ত্রাংশ বিকল হয়ে আরও অপচয় হয়।

মোটর মালিক সমিতির নেতারা আরও জানান, বর্তমানে বাংলাদেশে নানা উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে দ্রুতগতিতে। অথচ ময়মনসিংহ-ঢাকা মহাসড়কের গাজীপুর অংশের বেহাল সড়কটি চার বছর ধরে বেহাল থাকলেও সংস্কার করা হচ্ছে খুব ধীরগতিতে। এর পেছনে সরকারের কতিপয় আমলার ষড়যন্ত্র রয়েছে।

ময়মনসিংহ জিলা মোটর মালিক সমিতির সম্পাদক সোমনাথ সাহা বলেন, আজ বিকেলে ময়মনসিংহ বিভাগের শেরপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা ও জামালপুর জেলার পরিবহননেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে অনির্দিষ্টকালের জন্য চার জেলা থেকে বাস ও ট্রাক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন