বেসরকারি ফলাফল সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি সদর উপজেলার ছয়টি ইউপির মধ্যে শুধু বালুখালীতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অমর কুমার চাকমা জয়ী হয়েছেন। অন্য পাঁচ ইউনিয়নের মধ্যে সাপছড়ি ইউপিতে প্রবীণ চাকমা, বন্দুকভাঙ্গা ইউপিতে অমর চাকমা, জীবতলীতে সুদত্ত কার্বারি (চাকমা), মগবান ইউপিতে পুষ্প রঞ্জন চাকমা ও কুতুকছড়িতে কানন চাকমা জয়ী হয়েছেন। নানিয়ারচর উপজেলায় চারটি ইউপির মধ্যে বুড়িঘাটে প্রমোদ খীসা, সাবেক্ষ্যং ইউপিতে সুপন চাকমা, ঘিলাছড়ি ইউনিয়নে মিন্টু দেওয়ান ও নানিয়ারচর ইউনিয়নে বাপ্তি চাকমা জয়ী হয়েছেন।

ইউপি নির্বাচনে ফলাফল বিপর্যয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মূছা মাতব্বর বলেন, পাহাড়ি অস্ত্রধারীদের কারণে তাঁদের প্রার্থীরা সঠিকভাবে প্রচারণা করতে পারেননি। তা ছাড়া ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানো হয়েছে। সে জন্য তাঁদের প্রার্থীদের ভরাডুবি হয়েছে।

তবে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. শফিকুর রহমান বলেন, দুই উপজেলা ১০ ইউনিয়নে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুয়েক কেন্দ্রে ছোটখাটো অভিযোগ উঠলেও প্রশাসন দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া কোথায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন